বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
কুল-বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড

বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় লিটন, সাবিনা ও নাসরিন

বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় লিটন, সাবিনা ও নাসরিন

স্পোর্টস রিপোর্টার – বিএসপিএ বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ ২০২২-এর সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন ক্রিকেটার লিটন দাস, ফুটবলার সাবিনা খাতুন ও আর্চার নাসরিন আক্তার। এছাড়া পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ড ২০২২-এর সংক্ষিপ্ত তালিকায় লিটন দাস, সাবিনা খাতুনের সঙ্গে আছেন স্প্রিন্টার ইমরানুর রহমান। এই দুই বিভাগের বিজয়ীর নাম অনুষ্ঠানের দিন ঘোষণা করা হবে। আগামী ২৮ মে রবিবার বেলা সাড়ে ৩টায় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের গ্র্যান্ড বলরুমে ক্রীড়াঙ্গনে অন্যতম আকর্ষণীয় আসর “কুল-বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড ২০২২” অনুষ্ঠান হবে।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) ডাচ বাংলা ব্যাংক মিলনায়তনে এ উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মনোনয়নপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন বিএসপিএ-র সভাপতি সনৎ বাবলা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের হেড অব মার্কেটিং ড. জেসমিন জামান, বিএসপিএ সাধারণ সম্পাদক মো. সামন হোসেন, খেলোয়াড় যাচাই-বাছাই কমিটির কো-চেয়ারম্যান মাহবুব সরকার ও সদস্য সচিব সামীউর রহমান।

এ বছর ১৫টি বিভাগে সর্বমোট ১৯জন বর্তমান ও সাবেক ক্রীড়াবিদ, সংগঠক এবং সংস্থাকে পুরস্কৃত করা হবে। থাকবে অর্থ পুরস্কারও। এর মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ডের ভোটিং। ২৬ মে পর্যন্ত বিএসপিএ’র অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে www.bspa.com.bd গিয়ে যে কেউ ভোট দিতে পারবেন। বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশন (বিএসপিএ) ১৯৬৪ সালে দেশে প্রথম ক্রীড়াক্ষেত্রে পুরস্কারের প্রবর্তন করে।

উল্লেখ্য, এই নিয়ে অষ্টমবারের মতো দেশের স্বনামধন্য কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড এই আয়োজনের পৃষ্ঠপোষকতা করছে। মনোনীতদের ট্রফি, সার্টিফিকেটের পাশাপাশি প্রথমবারের মতো অর্থ পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দেন স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের হেড অব মার্কেটিং ড. জেসমিন জামান।

পূর্নাঙ্গ মনোনয়ন তালিকা
বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ মনোনীত – লিটন দাস (ক্রিকেট), সাবিনা খাতুন (ফুটবল), নাসরিন আক্তার (আর্চারি)।
পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ড মনোনীত – লিটন দাস (ক্রিকেট), সাবিনা খাতুন (ফুটবল), ইমরানুর রহমান (অ্যাথলেটিক্স)।
বর্ষসেরা ক্রিকেটার (পুরুষ) – লিটন দাস।
বর্ষসেরা ক্রিকেটার (নারী) – নিগার সুলতানা জ্যোতি।
বর্ষসেরা ফুটবলার (পুরুষ) – রবসন দি সিলভা রবিনিয়ো (ব্রাজিল)।
বর্ষসেরা ফুটবলার (নারী) – সাবিনা খাতুন।
বর্ষসেরা আরচার – নাসরিন আক্তার।
বর্ষসেরা হকি খেলোয়াড় – আশরাফুল ইসলাম।
বর্ষসেরা অ্যাথলেট – ইমরানুর রহমান।
বর্ষসেরা কোচ – গোলাম রব্বানী (বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দল)।
উদীয়মান ক্রীড়াবিদ – নাফিজ ইকবাল (টেবিল টেনিস), সিফাত উল্লাহ গালিব (ব্যাডমিন্টন)।
তৃণমূলের সংগঠক – আমিরুল ইসলাম (কুষ্টিয়ার সাঁতার কোচ)।
সেরা দলগত সাফল্য – সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী দল, ফিজিক্যাল চ্যালেঞ্জড ক্রিকেট দল।
বিশেষ সম্মাননা – সুমিতা রানী (হার্ডলার)।
সেরা সংস্থা – বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ